Wednesday, July 09, 2014

দিনাজপুরে হিন্দু শিক্ষিকাকে যৌন হয়রানির অভিযোগ শিক্ষকের বিরুদ্ধে

জেলার বিরল উপজেলার কাজিপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকের (লাইব্রেরিয়ান) বিরুদ্ধে এক শিক্ষিকাকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে।
এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষকের কাছে অভিযোগ দায়ের করার পরও অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিয়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন প্রধান শিক্ষক।
স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার রাণীপুকুর ইউপির কাজিপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের লাইব্রেরিয়ান পদে সম্প্রতি নিয়োগপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষক শমসের আলী ওই বিদ্যালয়ের হিন্দু ধর্ম বিষয়ক শিক্ষিকাকে বিভিন্ন সময় কু-প্রস্তাবসহ তাকে যৌনহয়রানি করে আসছে। এ ঘটনায় ওই শিক্ষিকা সুষ্ঠু বিচার চেয়ে প্রধান শিক্ষকের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু প্রধান শিক্ষক অভিযোগ পেয়ে শমসের আলীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিয়ে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন।


ওই শিক্ষিকার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘প্রায় তাকে উত্ত্যক্ত করায় তিনি ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রধান শিক্ষকের কাছে অভিযোগ করেছেন।’
এ ঘটনার বিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোল্লা ইলিয়াস আলীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান প্রধান শিক্ষকের কাছে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ওই শিক্ষিকা অভিযোগ করেছে। এছাড়া কাজিপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এসএম মাহমুদুল কবিরও ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।
অভিযুক্ত শিক্ষক শমসের আলীর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে কী না জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক মিমাংসা হয়েছে বলে ফোন কেটে দেন।
অভিযুক্ত শিক্ষক শমসের আলীর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে তাকে বিদ্যালয়ে পাওয়া যায়নি। ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিয়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ায় শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকার সচেতন মহলের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

(সুত্র: বাংলামেইল২৪.কম)

No comments:

Post a Comment