Friday, August 22, 2014

ভেবে দেখেছি কি?


গতকাল ফিলিস্তিন নিয়ে কথা হচ্ছিল। হঠাৎ মনে হল, আমাদের দেশের হিন্দুদের কথা। ওদের সাথে কত অত্যাচার করা হইছে, কত জমি দখল করা হইছে, কতজন বাধ্য হয়ে নিজের ভূখন্ড ছাড়ছে।

তারপর ভুলে গেছিলাম। আজকে ফেসবুকে কাকতালীয়ভাবে এক ভাইয়ার পোস্টে এই ছবিটা দেখে আবার মনে হল।

ইজরায়েল ভয়ানক অন্যায় করে আসছে ফিলিস্তিনিদের উপর। অনেক দিন ধরেই (যখন বেশ কিছু মানুষ মরে, তখন আলোচনায় আসে) চলছে। বাংলাদেশীরা ও তীব্রভাবে প্রতিবাদ করতেছে। এ সচেতনতা প্রয়োজন।

কিন্তু আমরা যেন সাথে ভুলে না যাই, যে আমাদের নিজের ভূখণ্ডে আমরা সংখ্যালঘুদের সাথে বছরের পর বছর কি করে আসতেছি। নিজেদের হাতে ক্ষমতা আসলে আমরা যদি ইজরায়েল হয়ে উঠি, তাহলে তাদের সমালোচনার মুখ কিন্তু থাকে না।

আশা করি, ইজরায়েলের অন্যায়ের বিরুদ্ধে মানুষ যেভাবে মতপ্রকাশ করতেছে, নিজের দেশের সাম্প্রদায়িকতা ও অন্যায়ের বিরুদ্ধেও একইরকম দ্ব্যার্থহীনভাবে বলবে।

নিজদেশে পরবাসী বোধ করাটা কত কষ্টের তা ফিলিস্তিনিরা জানে। আমাদের দেশের মুসলিমরা এই বিষয়ে সবসময় উচ্চকন্ঠ হলেও আমার মনে হয় আসলে ফিলিস্তিনিদের কষ্টটা অনেক বেশি জানে আমাদের দেশের হিন্দুরা।

কিছুদিনের বিরতি দেয়া হয়। তারপর আবার কোন অজুহাতে ওদেরকে মারা শুরু হয়। এমনকি বিরতির সময়ও নানাভাবে মনে করিয়ে দেয়া হয়, এ দেশ আসলে তাদের না।

হ্যাঁ, আমি ফিলিস্তিনিদের কথা বলতেছি। কিন্তু তাদের জায়গায় বাংলাদেশি সংখ্যালঘু বিশেষত হিন্দু বসিয়ে দেয়া যায় অনায়াসে। কত মিল!

আমি আবার বলতেছি, যে ইজরায়েল একটা ভয়ঙ্কর অন্যায় দীর্ঘদিন ধরে করে আসছে। এর বিরুদ্ধে যারা কথা বলতেছেন, আমি তাদের সাথে একাত্ম। কিন্তু নিজের দেশে আমরা যদি মানুষকে দেশছাড়া করে অন্যদেশের আগ্রাসন আর ফিলিস্তিনিদের উদ্বাস্তু হওয়া নিয়ে সমবেদনা জানাই, সেটা নির্মম কৌতুক।

এ তুলনাটা আক্ষরিক না। আমি জানি, তুলনাটা অনেক ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য না। কিন্তু এ বিষয়ে আমাদের সরাসরি অনেক কিছু করার আছে, কারণ এটা আমাদের দেশ। আমাদের দেশে সাম্প্রদায়িকতা আছে, ভালভাবেই আছে। নাহলে বছরের পর বছর এভাবে চলতে পারতো না।

আমরা যদি ফিলিস্তিনিদের দুঃখ আসলেই বুঝি, আমাদের উচিত হবে একই সাথে নিজেদের দেশের সাম্প্রদায়িক বৈষম্য আর অত্যাচারের বিরুদ্ধে সরব হওয়া।


(সূত্র

No comments:

Post a Comment